কেবলমাত্র এই সমীকরণ মিলে গেলেই সেমিতে যেতে পারবে বাংলাদেশ

কেবলমাত্র এই সমীকরণ মিলে গেলেই সেমিতে যেতে পারবে বাংলাদেশ


ads

বিশ্বকাপে নিজেদের ৫ম ম্যাচে এসে আবারো জয়ের ধারায় ফিরেছে বাংলাদেশ দল। টনটনে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৭ উইকেটে হারিয়েছে বাংলাদেশ।এতে করে ৫ পয়েন্ট নিয়ে এককভাবে টেবিলের পাঁচ নাম্বারে এখন স্টিভ রোডসের শিষ্যরা। এই জয়ের সাথে টিকে থাকলো বাংলাদেশের সেমিফাইনালের আশাও।

পয়েন্ট টেবিলে সবার উপরে অস্ট্রেলিয়া, তারপর নিউজিল্যান্ড, ভারত এবং ইংল্যান্ড সেমির দৌড়ে এগিয়ে।বর্তমান পয়েন্টস টেবিল, বাংলাদেশের সেমিতে যাওয়ার সম্ভাবনা ও ব্রেন্ডন ম্যাক’কালামের প্রেডিকশন।
দুইটা টিম নিশ্চিতভাবেই সেমিফাইনাল খেলবে। ১.ভারত২.অস্ট্রেলিয়া

মোটামুটি ভাবে নিশ্চিত নিজেদের মাটিতে ইংল্যান্ড কোনোভাবেই ছাড় দেবে না। সেমি তে তারা খেলবেই। শুধু তাই না, তারা খেলছে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার জন্য। তবে এই ইংল্যান্ড টিমই কিন্তু আনপ্রেডিক্টেবল পাকিস্তানের কাছে হেরে গিয়েছে। তাদের বাকী ৫ টি ম্যাচের মধ্যে ২ টি ম্যাচ হেরে গেলেই কিন্তু তাদের জন্যও সবকিছু কঠিন হয়ে যাবে। তবুও ধরেই নেওয়া যায় তারা সেমিফাইনাল খেলবেই যদি কোনো অঘটন না হয়। তবে আমরা সেই অঘটন টাই চাই।

যাইহোক, বাংলাদেশের সেমি তে যাওয়ার ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় বাধা কিন্তু নিউজিল্যান্ড। মেইন লড়াই টা হবে ওদের সাথেই। ৪ টি ম্যাচে অলরেডি ৭ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের দ্বিতীয় তে ওরা। যদিও ৪ টি ম্যাচ ই কিন্তু জিতেছে অপেক্ষাকৃত দূর্বল টিমগুলির কাছ থেকে। দূর্ভাগ্যবশত আমরাও তীরে এসে তরী ডুবিয়েছি তাদের সাথে।

নিউজিল্যান্ডের পরবর্তী ম্যাচ গুলো যথাযথাক্রমে সাউথ আফ্রিকা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, পাকিস্তান, অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডের সাথে। আমরা চাইবো কোনোভাবেই এই ৫টি ম্যাচের ২ টির বেশি জয় যাতে ওদের না থাকে। কারন ওরা যদি ৩ টি ম্যাচও জিতে যায় তাহলে পয়েন্ট হবে ১৩। এদিকে আমাদের প্রাপ্ত পয়েন্ট ৫। সামনের চারটি ম্যাচের ৩ টিতেও যদি আমরা জিতে যায় আমাদের পয়েন্ট হবে ১১। সেক্ষেত্রে হয়তো বাদ পরে যাবো আমরা। কারণ স্বাগতিক ইংল্যান্ড যে বাকি ৫ টা ম্যাচের মধ্যে ৩ টা জিতবে না এটা মোটামুটি অসম্ভব। তবে ক্রিকেটে অসম্ভব বলে কিছু নাই।

যদিও বিশ্বকাপ শুরুর আগেই ব্রেন্ডন ম্যাককালাম যে প্রেডিকশন দিয়ে রেখেছিলেন সেখানে তিনি বলেছিলেন ৪ নাম্বারে থেকে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করবে নিউজিল্যান্ড। তাই আমাদের আসল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে ব্ল্যাক ক্যাপস দের সাথেই। তবে বিশ্বাস রাখুন একটা ম্যাচের ব্যবধানে ৮ থেকে যদি ৫ এ চলে আসতে পারি তাহলে সব কঠিন সমীকরণ গুলি ঠেলে ৪ এ থেকে গ্রুপ পর্ব শেষ করতে পারবো।

সর্বশেষে বলবো ক্রিকেট অনিশ্চয়তার খেলা। যখন যেকোনো অঘটন ঘটে যেতে পারে। আমরা ইন্ডিয়া-অস্ট্রেলিয়া দুইটি টিম কেই হারিয়ে সেমিফাইনালে স্থান করে নিতে যেমন পারি, ঠিক তেমনি বাকি ৪ টা ম্যাচও কিন্তু টানা হেরে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নিতে পারি। সেক্ষেত্রে দ্বিতীয় টা যেকো কখনোই না হয়। এখন আমাদের করনীয় টাইগার্স দের পূর্ণ সমর্থন করা, প্লেয়ার/ম্যানেজমেন্ট/কোচ সবার ওপর আস্থা রাখা, এবং ওপরে যিনি আছেন ওনার কাছে প্রার্থনা করা।

তাই আমরা চাইবো সামনের ৪ টা ম্যাচে ৪ টাই জেতার নেশায় মাঠে নামা আর তার সাথে নিউজিল্যান্ড/ইংল্যান্ড এর মতো টিম যারা কিনা শক্ত অবস্থায় আছে তাদের অন্যান্য দলের সাথে হার কামনা করা। অনেকেই বলবে আমরা ৪ টা ম্যাচের ৪ টা জিতেই সেমি খেলবো, কারো দিকে তাকাবো না! যদি সেটা হয় এর চেয়ে সুখকর কিছু হবেনা আর।

Please Share This Post in Your Social Media

ads

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2019 khelajogbd
Design BY NewsTheme